শনিবার, এপ্রিল 13, 2024
শনিবার, এপ্রিল 13, 2024

HomeFact CheckFact check: সৌদি আরবে প্রকাশ্যে আযান দেয়া নিষেধ?

Fact check: সৌদি আরবে প্রকাশ্যে আযান দেয়া নিষেধ?

Claim- সৌদি আরবে প্রকাশ্যে আযান দেয়া নিষেধ


Fact- প্রকাশ্যে আযান নিষেধ করা হয় নি। বরং লাউড স্পিকারে আযান দেয়ায় কিছু সীমাবদ্ধতা এনেছে

‘পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে সৌদি আরবে রাষ্ট্রীয়ভাবে আজান দেয়া নিষেধ করলো’ এই শিরোনামে সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টিকটকে একটি খবর ছড়িয়ে পড়ে।

দেখুন এখানে- ফেসবুক, ফেসবুকটিকটক। 

পোস্টগুলোর স্ক্রিনশটগুলো দেখুন এখানে-

সৌদি আরবে আযান নিষিদ্ধ দাবিতে ভাইরাল পোস্ট
সৌদি আরবে আযান নিষিদ্ধ দাবিতে ভাইরাল পোস্ট
কার্টেসিঃ ফেসবুক/ইউজার

নিউজচেকার-বাংলাদেশ, দাবিটির সত্যতা যাচাই করে দেখেছে সংশ্লিষ্ট দাবিটি মিথ্যা।

Fact check/Verification

আসন্ন পবিত্র রমজান মাসকে ঘিরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টিকটকে বেশ কিছু জায়গায় একটি পোস্ট ভাইরাল হচ্ছে। পোস্টটিতে দাবি করা হচ্ছে ‘পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে সৌদি আরব রাষ্ট্রীয়ভাবে প্রকাশ্যে/ লাউডস্পিকারে আযান দেয়া নিষিদ্ধ করলো।’ আবার কোন কোন পোস্টে ‘আর কখনো আযান শুনা যাবে না ইসলামের জন্মভূমি সৌদি আরবে’ এমনও লেখা হচ্ছে। 

গুগল কি-সার্চ এর সাহায্যে নিউজচেকার-বাংলাদেশ দাবিটির সত্যতা যাচাই করে দেখেছে যে রাষ্ট্রীয়ভাবে সৌদি আরবের পক্ষ থেকে এমন কোন বিজ্ঞপ্তি বা বিধি-নিষেধ এর কথা বলা হয় নি।

দাবিটির বৈধতা যাচাই করতে গিয়ে আমরা মধ্যপ্রাচ্য ভিত্তিক বেশ কিছু গণ মাধ্যমে সম্প্রতি প্রকাশিত এই সংক্রান্ত খবর খুজে পাই। এসব প্রতিবেদনের মতে- সৌদি আরবের ইসলামিক এফেয়ারস, দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স মিনিস্টার শেখ ড. আব্দুল লতিফ বিন আব্দুল আজিজ আল শেখ, রাজ্যের সকল মসজিদ্গুলোকে বাহিরে চারটির বেশি লাউড স্পিকার ব্যবহার করতে নিষেধ করেছেন। যা ২৩ মার্চ, ২০২৩ থেকে সক্রিয়ভাবে পালন করতে আদেশ করা হয়। তবে কোথাও কোন বিজ্ঞপ্তিতে লাউডস্পিকার পুরোপুরি আযান নিষিদ্ধ করার কথা বলা হয় নি। 

প্রতিবেদন দেখুন এখানে- The Gulf News, ZAWYA, SaudiGazette

 এছাড়াও এই মর্মে ২০২১ সালে আল জাজিরাবিবিসি তে খবর প্রকাশিত হয়। 

এই সকল প্রতিবেদনে বলা হয় মসজিদের মাইকের উচ্চ শব্দের কারণে মন্ত্রী আব্দুল লতিফ বিন আব্দুল আজিজ আল শেখ এর নিকট অভিযোগ রয়েছে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে তিনি লাউডস্পিকারের সংখ্যা কমানোর মত সিদ্ধান্ত নেন। যদিও রাজ্য জুড়ে তা জনমনে অসন্তোষ তৈরি করে থাকে। 

শুধু লাউড স্পিকারই নয় বরং এর সাথে রয়েছে আরো কিছু বিধি-নিষেধ। সৌদি আরবের ইসলামিক এ্যাফেয়ারস মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল টুইটার পেইজে একটি বিজ্ঞপ্তি খুজে পাওয়া যায়। 

সৌদি আরবের ইসলামিক এ্যাফেয়ার মন্ত্রণালয়ের টুইটার পেইজ এ দেয়া বিধি-নিষেধ এর প্রজ্ঞাপন
সৌদি আরবের ইসলামিক এ্যাফেয়ার মন্ত্রণালয়ের টুইটার পেইজ এ দেয়া বিধি-নিষেধ এর প্রজ্ঞাপন
কার্টেসিঃ টুইটার/ ইসলামিক এ্যাফেয়ার, সৌদি আরব

এই বিজ্ঞপ্তিতে বেশ কিছু নিয়ম-কানুন মেনে চলার আদেশ দিলেও কোথাও আযান দেয়ার নিষেধাজ্ঞা নিয়ে কিছু বলা হয় নি।

এর আগে ভারতীয় কিছু গণমাধ্যমেও আব্দুল লতিফ বিন আব্দুল আজিজের বক্তব্য নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। দেখুন- এখানেএখানে। 

Conclusion

সৌদি আরবে প্রকাশ্যে লাউড স্পিকারে আযান দেয়া নিষিদ্ধ করার দাবিটি মিথ্যা। আযান নিষিদ্ধ নয় বরং লাউড স্পিকারের পরিমাণ সীমিত করার আদেশ দেয়া হয়েছে।

Result: False

Our Sources: 

The Gulf News,
ZAWYA
SaudiGazette
 টুইটার – সৌদি ইসলামিক এ্য্যাফেয়ারস মন্ত্রণালয় 


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান checkthis@newschecker.in। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us – ফর্মের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular