শুক্রবার, মার্চ 1, 2024
শুক্রবার, মার্চ 1, 2024

HomeFact CheckFact check: ওমান থেকে কয়লা আমদানি করছে না বাংলাদেশ

Fact check: ওমান থেকে কয়লা আমদানি করছে না বাংলাদেশ

Claim- ওমান থেকে ৭৭টি জাহাজ ভর্তি করে কয়লা আমদানি করছে বাংলাদেশ
Fact- ওমান নয়, ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানি করা হবে কয়লামন্ত্রণালয়

‘ওমান থেকে ৭৭টি জাহাজ ভর্তি করে ৮৫ লক্ষ ৯২ হাজার ৮৯৫ মেট্রিক টন কয়লা  আমদানি করছে বাংলাদেশ’ দাবিতে সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে বেশ কিছু পোস্ট ভাইরাল হয়েছে। পোস্টগুলো দেখুন এখানে- ফেসবুক , ফেসবুক, ফেসবুক, টিকটক, টিকট্‌ টিকটক, টিকটক, টিকটকটিকটক, টিকটক। পোস্টগুলোর স্ক্রিনশট দেখুব এখানে- 

ওমান থেকে কয়লা আমদানির দাবিতে ভাইরাল পোস্ট
কার্টেসিঃ টিকটক/ইউজার

নিউজচেকার-বাংলাদেশ অনুসন্ধান করে দেখেছে যে দাবিটি মিথ্যা। 

Fact check/ Verification

গুগল কি-ওয়ার্ড সার্চ এর সাহায্যে অনুসন্ধান করে জানা যায় ওমান থেকে ৭৭টি জাহাজ ভর্তি পরিমাণ কয়লা আমদানির খবরটি ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। সম্প্রতি এই দাবিটি অনেক বেশি ভাইরাল হয়ে গেলে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এই ব্যাপারে তাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে একটি বিবৃতি দিয়ে জানায় যে ওমান থেকে কোন প্রকার কয়লা আমদানি করা হচ্ছে না। এছাড়াও মূল ধারার বেশ কিছু গণমাধ্যমেও মন্ত্রনালয়ের বিবৃতি উল্লেখ করে উক্ত দাবিটি মিথ্যা এই মর্মে প্রতিবেদন করে। 

মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিটি দেখুন এখানে- বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়। বিজ্ঞপ্তির একটি স্ক্রিনশট দেখুন এখানে- 

ওমান থেকে কয়লা আমদানির দাবিটি মিথ্যা বলে মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তির স্ক্রিনশট
কার্টেসিঃ ফেসবুক/ বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় ওমান থেকে কয়লা আমদানির খবরটি শতভাগ মিথ্যা। তাছাড়া, পায়রা তাপ বিদ্যুতকেন্দ্রের জন্য প্রয়োজনীয় কয়লা আমদানি করা হবে ইন্দোনেশিয়া থেকে। আর সেই কয়লা আগামী ২৪শে জুন বিদ্যুৎকেন্দ্রে পৌছাবে। এছাড়াও এই দাবিটি মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর প্রসঙ্গে বেশ কিছু প্রতিবেদনও ছাপা হয় গণমাধ্যমে। দেখুন এখানে, এখানেএখানে। 

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের পটুয়াখালির পায়রা তাপ বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে ১৩২০ মেগাওয়াট এর বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয় ২ টি ইউনিটে। এই বিদ্যুৎ উৎপাদনে গড়ে প্রায় ১২ হাজার টন কয়লার প্রয়োজন পড়ে। সম্প্রতি কয়লা সরবরাহ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের ২ টি ইউনিটের একটি গত ২৫ মে বন্ধ হয় ও অন্যটি ৪ জুন পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। তবে এই বিদ্যুৎকেন্দ্র পুণরায় জুন মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়। প্রতিবেদন দেখুন এখানে- দ্যা ডেইলি স্টার। 

Rating: False

Our Sources: 
দ্যা ডেইলি স্টার  বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় 


সন্দেহজনক কোনো খবর ও তথ্য সম্পর্কে আপনার প্রতিক্রিয়া জানাতে অথবা সত্যতা জানতে আমাদের লিখে পাঠান checkthis@newschecker.in। এছাড়াও আমাদের সাথে Contact Us – ফর্মের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular